‘নির্বাচনের জন্য বিপিএল আটকাবে না’

জাতীয় সংসদ নির্বাচন যদি ডিসেম্বরে না হয়ে জানুয়ারিতে গড়ায়, তবে বিপিএল নির্ধারিত সময়ে শুরু হবে তো? বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান আজ জানিয়েছেন, নির্বাচন হলেও আগের তারিখ থেকে সরবেন না। ৫ জানুয়ারি থেকেই শুরু হবে বিপিএল।

বিপিএলের ষষ্ঠ পর্ব শুরু হতে পারে আগামী বছরের ৫ জানুয়ারি, দুই মাস আগে এটাই জানিয়েছিলেন বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান। কিন্তু জাতীয় সংসদ নির্বাচন যদি ডিসেম্বরের মধ্যে না হয়, যদি সেটি জানুয়ারিতে গড়ায়, বিপিএল ঠিক সময়ে শুরু হবে তো? প্রশ্নটা গত কদিনে ঘুরেফিরে আসছে। বিসিবি সভাপতি আজ সংবাদমাধ্যমকে জানালেন, নির্ধারিত সময়েই হয়ে যাবে বিপিএল।

বিপিএল প্রথমে হওয়ার কথা ছিল চলতি অক্টোবরে। বিসিবির বিপিএল গভর্নিং কাউন্সিলই জানিয়েছিল, নির্বাচনকে সামনে রেখে এ সময়ে সম্ভব হবে না আয়োজন করা। তবে নাজমুল আজ জানালেন, ঠিক নির্বাচনের কারণে বিপিএল পেছানো হয়নি।

এও বললেন, নির্ধারিত সময়েই হয়ে যাবে আগামী বিপিএল, ‘নির্বাচনের জন্য আমরা অপেক্ষা করব না। জিম্বাবুয়ে-ওয়েস্ট ইন্ডিজ সিরিজের প্রতিশ্রুতি ছিল। বিপিএল পেছানো হয়েছে এ দুটি সিরিজের জন্য।

ডিসেম্বরে হতে পারত, কিন্তু তখন খেলোয়াড় পেতাম না। কিছু বিষয় আছে। আমার মনে হয় না, নির্বাচনের জন্য বিপিএলের তারিখ বদলাব। আমার মনে হয়, এক দুই-দিনের তারিখ পরিবর্তন হতে পারে। নির্বাচনের জন্য আটকাবে না।’

নির্বাচনের মধ্যেই যদি বিপিএল হয়ে যায়, স্থানীয়-বিদেশি খেলোয়াড়, কোচরা শতভাগ নিরাপত্তা পাবেন তো? আইন-শৃঙ্খলাবাহিনী মনোযোগ তো তখন নির্বাচনের দিকেই থাকার কথা।

বিসিবি সভাপতির বিশ্বাস, রাজনৈতিক কারণে ক্রিকেট বাধাগ্রস্ত হবে না, ‘ক্রিকেট আজ যে জায়গায় এসেছে, আমরা সবার সমর্থন পাচ্ছি। একবার বিপিএলে আমাদের একটা খেলা ছিল চট্টগ্রামে। সেখানে যাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে হরতাল তুলে নেওয়া হলো। বিরোধী দলও ক্রিকেটকে ছাড় দিয়ে এসেছে। এটা একটা সুবিধা। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী খেলার জন্য পাগল।

আমার ধারণা সবার সহযোগিতা পাব। সমস্যা তো থাকবেই। সবাই আমাদের যে সমর্থন দিচ্ছে, এটা পেলে কোনো সমস্যা হবে বলে মনে হয় না। এটা নিয়ে চিন্তিত হয়ে খেলা পেছানো কিছু নেই। এখনো পর্যন্ত যেটা ঠিক হয়েছে ৫ তারিখ থেকে সরানোর কোনো কারণ নেই। এর মধ্যে নির্বাচনের তারিখ যদি পড়ে যায়, ও রকম কোনো অস্বাভাবিক পরিস্থিতি সৃষ্টি না হলে এটা থেকে সরব না।’