যত শক্ত মাংসই হোক, এই সহজ উপায় মানলে মাংস নরম হবেই

• বাঙালি পেট রোগা যতই হোক, তাঁদের নামের পাশ থেকে খাদ্যরসিক তকমা কেউ কেড়ে নিতে পারবে না ৷ মুসুর ডাল আর আলু পোস্ত যতই থাক, সঙ্গে মুরগি-মাটন না হলে একেবারেই চলবে না ৷

• বিশেষ করে বেশিরভাগ বাঙালি পরিবারে আজও রবিবার দুপুরে মাংস রান্নার রেওয়াজ রয়েছে ৷ কিন্তু মাংস ভাল করে বুজেশুনে কিনতে না পারলেই মুশকিল ৷ অনেক সময় অসৎ ব্যবসায়ীরা এমন মাংস দিয়ে দেন, যা সিদ্ধ হতেই চায় না ৷ আবার ঘরে এমন মানুষও থাকতে পারেন যিনি নরম মাংস ছাড়া খেতে পারেন না ৷

• তাই অবশ্যই মাংস রান্নার আগে জেনে নিন ৪টি উপায় ৷ এই উপায়ে মাংস রাঁধলে যত শক্তই মাংস হোক না কেন, সুসিদ্ধ হবেই ৷

• টুকরো করা: অনেকেই জানেন না, মাংস টুকরো করারও একটি নির্দিষ্ট পদ্ধতি রয়েছে ৷ ইচ্ছে মতো কেটে ফেললেই হল না ৷ মাংসের ফাইবার যে দিকে রয়েছে, সেইদিকেই কাটতে হবে ৷ এর উল্টো দিকে হলে মাংস ছিবড়ে হয়ে যাবে ৷

• ম্যারিনেট: মাংস নরম করতে ম্যারিনেশনের একটি আলাদা গুরুত্ব রয়েছে ৷ টক দই আর পেঁপের পেস্টে রান্নার আগে মাংস অন্তত ২-৩ ঘণ্টা ম্যারিনেট করে রাখুন ৷ যদি অনেকটা সময় থাকে তাবলে ৬-৭ ঘণ্টাও এভাবে রাখতে পারেন ৷ এতে আরো ভাল ফল পাবেন ৷ ম্যারিনেট করে সারারাত ফ্রিজে রেখে দিলেও খুব ভাল সিদ্ধ হবে মাংস ৷

• রান্নার পদ্ধতি: মাংস ভাল করে সিদ্ধ রতে চাইলে একটু ধীরে রান্না করতে হবে ৷ গ্যাস কমিয়ে দিয়ে ঘণ্টা তিনেক রে রান্না করতে পারলে মটন নরম হবেই ৷

• মাংসে নুন দিন: যদি ম্যারিনেট করার সুযোগ না থাকে, তাহলে শুধুমাত্র নুন মাখিয়ে ১-২ ঘণ্টা রেখে দিন ৷ এতেও নরম হবে মাংস ৷ রান্নার আগে অবশ্য অতিরিক্ত নুন ধুয়ে, মাংস পরিষ্কার করে নিয়ে রান্না শুরু করতে হবে ৷

সংবাদটি ভাল লাগলে শেয়ার করুন


আরও দেখুনঃ