শীত না যেতেই শুরু ঝড়-বৃষ্টি

70

কাগজে-কলমে শীতকাল থাকবে আরও তিনদিন। এরপরই আসবে ফাল্গুন, ঋতুরাজ বসন্ত। কিন্তু শীত না যেতেই ঝড়-বৃষ্টি শুরু হয়ে গেছে। যদিও গত তিনদিন ধরে দেশ থেকে শৈত্যপ্রবাহ দূর হয়ে গেছে।

সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ১০ ডিগ্রি সেলসিয়াস ছাড়িয়ে গেছে। এজন্য তাপমাত্রা বাড়ছে সারা দেশেই। তবে মেঘ ও বৃষ্টির কারণে আগামী ২৪ ঘণ্টায় তাপমাত্রা আবার কিছুটা কমবে। আবহওয়াবিদরা জানিয়েছেন, এরপর থেকে তাপমাত্রা বেড়ে মূলত আগামী কয়েকদিনের মধ্যে শীত পুরোপুরি বিদায় নেবে।

একদিনের ব্যবধানে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা এক দশমিক ২ ডিগ্রি সেলসিয়াস বেড়ে গেছে। শুক্রবার দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল সিলেটের শ্রীমঙ্গলে ১০ দশমিক ৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস। শনিবার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ঈশ্বরদীতে ১২ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

শুক্রবার ঢাকায় সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ১৬ দশমিক ২ ডিগ্রি থাকলেও শনিবার তা বেড়ে হয়েছে ১৮ দশমিক ৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

আবহাওয়া অধিদফতরের তথ্য অনুযায়ী, শনিবার সকাল পর্যন্ত গত ২৪ ঘণ্টায় রংপুর ও রাজশাহীর বিভিন্ন স্থানে ঝড়-বৃষ্টি হয়েছে। খুলনার কিছু স্থানেও বৃষ্টি হয়েছে। এ সময়ে পঞ্চগড়ের তেঁতুলিয়ায় সর্বোচ্চ ১২ মিলিমিটার বৃষ্টি হয়েছে। এ ছাড়া সৈয়দপুর ও বদলগাছীতে ১১, বগুড়ায় ১০, ডিমলায় ৩, রাজারহাটে ২, যশোরে ২, চুয়াডাঙ্গা ও কুমারখালীতে ১ মিলিমিটার বৃষ্টি হয়েছে।

রংপুর, দিনাজপুর, রাজশাহী ও তাড়াশে ৫ মিলিমিটার করে বৃষ্টি হয়েছে।

শনিবার সকাল ৯টা থেকে আগামী ২৪ ঘণ্টার আবহাওয়ার পূর্বাভাসে জানানো হয়েছে, ঢাকা, রাজশাহী, রংপুর, ময়মনসিংহ ও সিলেট বিভাগের কিছু কিছু জায়গায় এবং খুলনা, বরিশাল ও চট্টগ্রাম বিভাগের দু’এক জায়গায় অস্থায়ী দমকা হাওয়াসহ বৃষ্টি বা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে।

এ সময়ে সারাদেশে রাত এবং দিনের তাপমাত্রা এক থেকে ৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস কমতে পারে জানিয়ে পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, সকালের দিকে দেশের কোথাও কোথাও হালকা থেকে মাঝারি ধরনের কুয়াশা পড়তে পারে।

শনিবার সকাল থেকেই ঢাকার আকাশ মেঘলা রয়েছে। তবে মেঘের ফাঁকে মাঝে মাঝেই উঁকি দিচ্ছে সূর্য।