আলিঙ্গন শিশুর জন্য যে কারণে জরুরি

46

আজকাল বেশিরভাগ বাবা-মাই এত বেশি ব্যস্ত থাকেন যে শিশুদের ঠিক মতো সময় দিতে পারেন না। গবেষণা বলছে, সারদিন বাবা-মায়ের একটু প্রাণভরা আদর শিশুকে অন্য বাচ্চাদের তুলনায় প্রাণবন্ত করে তুলতে পারে।

ব্রাক বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকরা বলছেন, প্রতিদিন মা-বাবার সঙ্গে শিশুদের অন্তত ২০ সেকেন্ডের আলিঙ্গন জরুরি। এতে মা-বাবার সঙ্গে শিশুর বন্ধনও দৃঢ় হয়।

গবেষকদের মতে, শিশুদের স্বাভাবিক ভাবে বেড়ে ওঠার জন্য ইন্দ্রিয় উদ্দীপনা খুব প্রয়োজন। স্পর্শ, বিশেষ করে আলিঙ্গন শিশুদের মস্তিষ্ক ও সুস্থ শরীরের জন্য চমৎকার উদ্দীপক হিসাবে কাজ করে। এতে শিশু চটপটেও হয়।

গবেষকরা বলছেন, যত ভালোমন্দই খাওয়ানো হোক না কেন , শিশুর মানসিক ও শারীরিক গঠনে তার মা-বাবার আদর বা স্পর্শ প্রয়োজন। শিশুর শারীরিক বিকাশে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে অক্সিটোসিন হরমোন। এটি ভালোবাসার হরমোন হিসাবে পরিচিত। শিশুকে আলিঙ্গনের মধ্য দিয়ে এই হরমোনের নিঃসরণ ঘটে। সেই সঙ্গে এমন আরও অনেক হরমোন সক্রিয় হয়ে ওঠে, যেগুলি শিশুর শারীরিক বিকাশে ভূমিকা রাখে।

গবেষণায় জানা গেছে, সুস্বাস্থ্যের জন্যও আলিঙ্গন জরুরি। অক্সিটোসিন হরমোনের নিঃসরণ শিশুর শরীরে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাও বাড়িয়ে দেয়। পাশাপাশি শরীরে থাইরয়েড হরমোনের লেভেলও কমিয়ে দেয়। এ কারণে শিশুর ক্ষতস্থান দ্রুত সেরে ওঠে। সূত্র : টাইমস অব ইন্ডিয়া