ফেসবুকে বন্ধুর ছদ্মবেশে প্রতারণা বাড়ছে

64

বিশ্বের সবচেয়ে বড় সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম ফেসবুক। অনেকেই ফেসবুকে দীর্ঘ সময় কাটান। ফেসবুককে কেন্দ্র করেই গড়ে উঠেছে অনেক প্রতারক চক্র। নানা কৌশলে ফেসবুক ব্যবহারকারীকে বোকা বানিয়ে অর্থ হাতিয়ে নিচ্ছে এসব সাইবার দুর্বৃত্ত।

সাইবার নিরাপত্তা বিশেষজ্ঞরা বলছেন, ফেসবুক স্ক্যাম বা প্রতারণা বেড়ে গেছে। ফেসবুক প্ল্যাটফর্মের পাশাপাশি মেসেঞ্জার ব্যবহার করেও প্রতারণা করতে দুর্বৃত্তরা। অনেক ক্ষেত্রে অ্যাকাউন্ট হ্যাক করে ফেসবুক ব্যবহারকারী বন্ধুর ছদ্মবেশে অর্থ চাওয়া হচ্ছে।

আবার অনেক ক্ষেত্রে ফেসবুক থেকে ছবি ও তথ্য নিয়ে ভুয়া প্রোফাইল তৈরি করে আত্মীয়-স্বজন বা বন্ধুর সঙ্গে প্রতারণা করছে। অনেক সময় বিশ্বস্ত বন্ধুর ছদ্মবেশে আসায় এ ধরনের প্রতারণা সহজে ধরা যায় না।

সিঙ্গাপুর পুলিশ ফোর্স (এসপিএফ) বলেছে, গত বছরে ফেসবুকে প্রতারণা করে তাদের দেশ থেকে ১০ লাখ ডলার হাতিয়ে নেওয়ার ঘটনা ঘটেছে। ২০১৮ সালের জানুয়ারি মাস থেকে ২০১৯ সালের জানুয়ারি মাস পর্যন্ত দেশটিতে ৪২ জন প্রতারণার শিকার হওয়ার বিষয়ে পুলিশের কাছে বলেছেন। তাঁদের অনেকেই বন্ধুর ছদ্মবেশে আসা দুর্বৃত্তের প্রতারণা শিকার হয়েছেন। অনেকে আবার মেসেঞ্জারে নানা অফারে প্রলোভনে পড়েছেন। পরে প্রকৃত বন্ধুর সঙ্গে যোগাযোগ করে প্রতারণার বিষয়টি ধরতে পারেন তাঁরা।

ফেসবুকে এ ধরনের প্রতারণা থেকে বাঁচতে করণীয়:

১. কোনো অস্বাভাবিক অনুরোধ ও বার্তা এলে সতর্ক থাকুন। বিশেষ করে সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে অপরিচিত কারও কাছ থেকে বার্তা পেলে সতর্ক থাকুন।

২. দ্রুত বড়লোক হওয়ার আশায় ফেসবুকের কোনো লিংকে ক্লিক করবেন না। ফেসবুকে আসা নানা অফার, বিদেশ ভ্রমণ, ছাড় ও উপহার বিষয়ে সতর্ক থাকুন। কোনো কিছুর বিনিময়ে আগে অর্থ চাইলে তা অবশ্যই যাচাই করবেন। যদি কোনো সন্দেহ জাগে তবে বার্তা প্রেরক বা অনুরোধকারীর প্রকৃত পরিচয় নিশ্চিত হয়ে নিন।

৩. সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে বন্ধুদের কেউ টাকা ধার চাইলে বা দ্রুত অর্থ পাঠাতে বললে তার অ্যাকাউন্ট হ্যাক হয়েছে কি না, তা অন্য কোনো উপায়ে যাচাই করে নিন।

৪. অনেক ক্ষেত্রে লটারি জেতার বা অন্য কোনো উৎস থেকে অর্থ পাওয়ার প্রলোভন দেখানো হয়। এ জন্য ব্যক্তিগত তথ্য দেওয়ার পাশাপাশি ব্যাংকের তথ্য চায়। অনেক সময় অগ্রিম কিছু টাকা পাঠাতে অনুরোধ করে। এ ধরনের অনুরোধে সাড়া দেবেন না।

৫. অনলাইনে প্রেমের প্রস্তাবে সাড়া দেওয়ার আগে সচেতন থাকুন।

৬. প্রতারণার শিকার হলে পুলিশের সঙ্গে যোগাযোগ করুন।