Avatar

রহমতের শেষদিনে সফলতা লাভে যে দোয়া পড়বেন

190

রোজাদার প্রতিদিনই আল্লাহর কাছে ক্ষমা প্রার্থনা করে। কামনা করে রহমত বরকত ও কল্যাণ। আজ থেকে মাগফেরাত তথা ক্ষমা প্রার্থনায় নিজেকে বিলিয়ে দেবে মুমিন মুসলমান।

আজ রমজানের দ্বিতীয় দশক। এ দশকে মানুষ শুধু আল্লাহর কাছে ক্ষমা প্রার্থনা করবে। বিগত জীবনের গোনাহ মাফের সর্বোচ্চ চেষ্টায় লিপ্ত হবে তারা।

কান্না ও রোনাজারিতে অশ্রু বিসর্জন দেবে রোজাদার। আর আল্লাহ কাছে বার বার প্রার্থনা করবে-
اَللَّهُمَّ حَبِّبْ إلَيَّ فِيْهِ الْإحْسَانَ، وَكَرِّهْ فِيْهِ الْفُسُوْقَ وَالْعِصْيَانَ، وَحَرِّمْ عَلَيَّ فِيْهِ السَّخَطَ وَالنِّيْرَانَ، بِعَوْنِكَ يَا غَيَاثَ الْمُسْتَغِيْثِيْنَ
উচ্চারণ : ‘আল্লাহুম্মা হাব্বিব ইলাইয়্যা ফিহিল ইহসান; ওয়া কাররিহ ফিহিল ফুসুক্বা ওয়াল ইসইয়ান; ওয়া হাররিম আলাইয়্যা ফিহিস সাখাত্বা ওয়ান নিরানা বিআওনিকা ইয়া গিয়াছাল মুসতাগিছিন।’

অর্থ : ‘হে আল্লাহ! আজ আমার কাছে সৎ কাজকে প্রিয় করে দাও; অন্যায় ও নাফরমানিকে অপছন্দনীয় করে দাও; তোমার রহমতের ওসিলায় আমার জন্য তোমার ক্রোধ ও যন্ত্রণাদায়ক শাস্তি হারাম করে দাও। হে আবেদনকারীদের আবেদন শ্রবণকারী।’

রোজাদারের জন্য একটি কথা মনে রাখা জরুরি-
আল্লাহ তাআলা মন্দ কাজ সংঘটিত হওয়ার সব বিষয়গুলোকে হালকা করেছেন রোজাদারের ইবাদত-বন্দেগি করার জন্য। জান্নাতের দরজা খুলে দিয়েছেন জান্নাতি পরিবেশ লাভের জন্য। আবার জাহান্নামের দরজা ও শয়তানকে বেড়ি পড়ানোর মাধ্যমে অপরাধ প্রবণতা কমিয়ে দিয়েছেন।

সুতরাং রমজানের দ্বিতীয় দশকে আল্লাহ ক্ষমা লাভে অস্রু বিসর্জনের বিকল্প নেই। আল্লাহর কাছে ঈমানদার রোজাদারের চোখের পানির মূল্য অনেক। ঈমানদার যদি আল্লাহর ক্ষমা লাভে অস্রু বিসর্জন দিতেই পারে তবে সে পানি মাটিতে পরার আগেই আল্লাহ তাকে ক্ষমা করে দেবেন।

আল্লাহ তাআলা মুসলিম উম্মাহকে তার রহমতের ওসিলায় দুনিয়ার যাবতীয় অন্যায় ও খারাপ কাজ থেকে বিরত থেকে ক্ষমা লাভের তাওফিক দান করুন। আমিন।

মন্তব্য লিখুন

Please enter your comment!
Please enter your name here