ফতুল্লায় যুবককে কুপিয়ে হত্যা, আহত ৮

Avatar
নিজাম উদ্দিন, সিনিয়র রিপোর্টার
১০:২৯ পূর্বাহ্ণ, জুলাই ২৮, ২০১৯

নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লায় মোটরসাইকেলের লাইট চোখে লাগাকে কেন্দ্র করে শাকিল (৩০) নামের এক যুবককে কুপিয়ে হত্যা করেছে একদল মুখোশধারী সন্ত্রাসী। এ সময় সন্ত্রাসীদের অস্ত্রের আঘাতে আরও ৮ জন আহত হয়েছে।

শনিবার (২৭ জুলাই) রাত ১১টার দিকে ফতুল্লার দেওভোগ হাশেম নগর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। নিহত শাকিল ফতুল্লার দেওভোগ পূর্বনগর এলাকার মৃত আমান উল্লাহর ছেলে। আহতরা হলেন- শাওন, সজিব, শুভাষ। অন্যদের পরিচয় তাৎক্ষণিকভাবে জানা যায়নি।

আহত শুভাষ জানান, তিনি শহরের ২নং রেলগেইট এলাকা থেকে মোটরসাইকেলে রাত ১১টায় বাংলাবাজার বাসার উদ্দেশ্যে রওনা দেন। শহরের দেওভোগ হাশেমনগর এলাকায় পৌঁছানো মাত্র সেখানে দাঁড়িয়ে একদল মুখোশধারী সন্ত্রাসী পথরোধ করে এলোপাথাড়ি কোপাতে থাকে। এ সময় আশপাশের লোকজন ছুটে আসলে তাদেরকেও কুপিয়ে জখম করে। কী কারণে তারা এভাবে কুপিয়েছে তা জানি না।

স্থানীয়রা জানায়, স্থানীয় সন্ত্রাসী চান্দু, নিক্সন, তুহিন ও তার বন্ধুরা মুখোশ পরে সড়কে দাঁড়িয়ে ছিল। তখন এক ব্যক্তি মোটরসাইকেল চালিয়ে যাচ্ছিল। ওই সময় মোটরসাইকেলের আলো দাঁড়িয়ে থাকা মুখোশধারী সন্ত্রাসীদের চোঁখে লাগে। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে প্রথমে মোটরসাইকেল আরোহীর ওপর হামলা চালায়। পরে আশপাশের লোকজন এসে তাকে বাঁচাতে গেলে সন্ত্রাসীরা তদেরকেও কোপায়। এ সময় শাকিল নামের একজনকে এলোপাথাড়ি কুপিয়ে রক্তাক্ত জখম করে। তাকে মুমূর্ষু অবস্থায় উদ্ধার করে হাসপাতালে নেয়া হলে চিকিৎসকরা মৃত ঘোষণা করেন।

ফতুল্লা মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আসলাম হোসেন জানান, মুখোশধারী সন্ত্রাসীদের ধারালো অস্ত্রের আঘাতে শাকিল নামের একজন নিহত হয়েছে। আর বেশ কয়েকজন আহত হয়েছে। বিস্তারিত জানতে পুলিশের একাধিক টিম ঘটনাস্থলে রয়েছে। পরে বিস্তারিত জানানো হবে। আর সন্ত্রাসীদের গ্রেফতারে অভিযান চলছে।

মন্তব্য লিখুন

Please enter your comment!
Please enter your name here