আজিজ মোহাম্মদ ভাইয়ের ব্যাংক হিসাব স্থগিত

রহস্যময় ব্যক্তি ও চলচ্চিত্র প্রযোজক আজিজ মোহাম্মদ ভাইয়ের ব্যাংক হিসাব স্থগিত করেছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক।

সোমবার বাংলাদেশ ফাইন্যান্সিয়াল ইন্টেলিজেন্স ইউনিট (বিএফআইইউ) তার হিসাব স্থগিত করতে ব্যাংকগুলোতে চিঠি দিয়েছে। আগামী ৩০দিন আজিজ মোহাম্মদের ব্যাংক হিসাবগুলোতে কোন ধরনের লেনদেন করতে পারবে না।

বিএফআইইউ সূত্র বিষয়টি নিশ্চিত করেছে।

চিঠিতে শাহেদুল হক নামে আরও এক ব্যক্তির ব্যাংক হিসাব স্থগিত ও হিসাবের সব ধরনের তথ্য তলব করা হয়েছে। ৩০ অক্টোবরের মধ্যে এসব তথ্য বাংলাদেশ ব্যাংকে পাঠাতে হবে।

চিঠিতে বলা হয়, ওইসব ব্যক্তির নামে বা তার স্বার্থ সংশ্লিষ্ট ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানের নামে কোনো হিসাব অতীতে বা বর্তমানে থাকলে সেগুলোর যাবতীয় কাগজপত্রসহ হিসাব খোলার ফর্ম, কেওয়াইসি, শুরু থেকে হালনাগাদ লেনদেন বিবরণী পাঠানোর নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

আজিজ মোহাম্মদ ভাই ও তার স্বার্থ সংশ্লিষ্ট হিসাবগুলোতে এখন থেকে কোনো লেনদেন করা যাবে না। মানি লন্ডারিং আইন অনুযায়ী আগামী ৩০ দিন হিসাবগুলো স্থগিত থাকবে। এরপর প্রয়োজন মনে করলে বিএফআইইউ’র মেয়াদ আরও বাড়াতে পারবে।

এরে আগে গত রোববার (২৭ অক্টোবর) রাজধানীর গুলশানে আজিজ মোহাম্মদ ভাইয়ের বাসায় অভিযান চালায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতর। সেখানে বিপুল পরিমাণ মাদকদ্রব্য ও ক্যাসিনোর সরঞ্জাম পাওয়া যায়। আটক করা হয় তার বাড়ির দুই কেয়ারটেকারকে।

জানা গেছে, ১৯৯৭ সালে জনপ্রিয় চিত্রনায়ক সালমান শাহের মৃত্যুর পর যে কয়জনের বিরুদ্ধে অভিযোগ উঠে তাদের মধ্যে তিনি অন্যতম। সালমান শাহের মৃত্যুর দুই বছর পর ১৯৯৯ সালে ঢাকা ক্লাবে খুন করা হয় আরেক চিত্রনায়ক সোহেল চৌধুরীকে। এ হত্যায়ও তার বিরুদ্ধে অভিযোগ রয়েছে।

প্রয়াত রাষ্ট্রপতি হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদের আমলে প্রথম গ্রেফতার করা হয়েছিল তাকে। প্রচলিত আছে, এক নারী নিয়ে দ্বন্দ্বের কারণেই এরশাদ তাকে গ্রেফতার করিয়েছিলেন।

তিনি হলেন বাংলাদেশে একজন রহস্যময় ব্যক্তি। নাম- আজিজ মোহাম্মদ ভাই। সপরিবারে থাকতেন থাইল্যান্ডে। সেখান থেকেই বাংলাদেশে মাদকের ব্যবসা পরিচালনা করতেন তিনি। গুলশানের বাসাটির দেখাশোনা করতেন তার ভাই ও বোন।

মন্তব্য লিখুন

Please enter your comment!
Please enter your name here