ঠাকুরগাঁও হরিপুর উপজেলায় এবার সভা সমাবেশ নিষিদ্ধ অনিদিষ্টকালের জন্য ১১৪ ধারা জারি

আ’লীগের দু’গ্রুপের দ্বন্দ্বের জেরে ঠাকুরগাঁও হরিপুর উপজেলায় রাজনৈতিক দলের সভা সমাবেশ নিষিদ্ধ করে অনিদিষ্টকালের জন্য ১১৪ ধারা জারি করেছে প্রশাসন। বুধবার সন্ধ্যা থেকে এ আদেশ জারি করা হয়।

পুলিশ জানান, দীর্ঘ দিন ধরে হরিপুর উপজেলায় আ’লীগের কমিটিকে কেন্দ্র করে দু’গ্রুপের মধ্যে দ্বন্দ্ব লেগেই আছে। গত বুধবার হরিপুর ইপজেলার বকুয়া ইউনিয়ন আ’লীগের বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল। পরে উক্ত সভাকে কেন্দ্র করে দু’গ্রুপের লোকজন উপজেলার বিভিন্নস্থানে মারমুখি অবস্থান নেয়। পরে প্রশাসনের পক্ষ থেকে ৯ নভেম্বর পর্যন্ত শুধুমাত্র বকুয়া ইউনিয়নের চাপদা বাজার এলাকায় ১৪৪ ধারা জারি করা হয়।

কিন্তু তার পরেও দু’গ্রুপের নেতাকর্মীরা উপজেলায় ছড়িয়ে ছিটিয়ে নিজেদের মধ্যে সংঘর্ষের রুপ নেয় বলে আশংকা করা হয়। পরবর্তিতে প্রশাসন সার্বিক পরিস্থিতি বিবেচনায় বুধবার সন্ধ্যা থেকে হরিপুর উপজেলায় ১৪৪ ধারা জারি করা হয়। তবে রাজনৈতিক দলগুলোর সকল ধরনের সভা সমাবেশ ছাড়া বাকি সকল কার্যক্রম স্বাভাবিক থাকবে।

উল্লেখ্য, হরিপুর উপজেলা আ’লীগের কমিটিতে অনুমোদন ছাড়াই নতুন করে সদস্য অন্তর্ভুক্ত করায় পর থেকেই রাজনৈতিক অস্থিরতা শুরু হয়। উপজেলা আ’লীগের একাধিক নেতা জানান, আ’লীগের কিছু সুবিধাবাদী নেতার কারনে এ ধরনের পরিস্থিত সৃষ্টি হয়েছে। ত্যাগী নেতারা বাদ দিয়ে একটি পক্ষ গায়ের জোরে দলীয় সকল প্রকার কার্যক্রম চালিয়ে যেতে চায়।

যারা দীর্ঘ দিন ধরে আ.লীগের হাল ধরে আছে তাদের বাদ দিয়ে কার্যক্রম পরিচালনার জন্য এমন পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়েছে বলে জানান তারা।
হরিপুর উপজেলার নির্বাহী অফিসার আব্দুল করিম জানান, রাজনৈতিক সকল ধরনের সভা সমাবেশ নিষিদ্ধের উপড় উপজেলায় অনিস্টিকালের জন্য ১৪৪ ধারা জারি করা হয়েছে। এছাড়া সকল ক্ষেত্রে চলাচল স্বাভাবিক থাকবে।

ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি

মন্তব্য লিখুন

Please enter your comment!
Please enter your name here